বেতন বৃদ্ধির দাবিতে কাজ বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিলেন গ্রুপ ডি-র কর্মচারীরা পার্কসার্কাসের চিত্তরঞ্জন ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজের। তাঁদের দীর্ঘ দিনের দাবি হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের কাছে, একই ধরনের কাজে গ্রুপ ডি অর্থাৎ চুক্তিভিত্তিক কর্মীদের সমবেতন দেওয়া হোক। সেই দাবি না মানায় তাঁরা বৃহস্পতিবার সকাল থেকে কাজ বন্ধ করে দিয়েছেন। তার ফলে হাসপাতালে কাজকর্ম ব্যাহতও হচ্ছে খুব। তবে কর্তৃপক্ষের আশা, সমস্যা মিটিয়ে ফেলা যাবে আলোচনার মাধ্যমে।

ঠিকাকর্মীদের একাংশের বক্তব্য, তাঁরা সদ্যসমাপ্ত বিধানসভা নির্বাচনের আগেও কর্তৃপক্ষের কাছে এই বিষয়টি নিয়ে দাবিপত্র পেশ করেছিলেন। কিন্তু ভোটের ফল প্রকাশের পর দু’মাস কেটে যাওয়া সত্ত্বেও দাবি পূরণ না হওয়ায় নিজেদের কাজকর্ম বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছেন তাঁরা প্রতিবাদে নেমে। বিক্ষোভে অংশ নেওয়া এক কর্মী বৃহস্পতিবার বলেন, ‘কারও বেতন সাড়ে ৭ হাজার। কারও আবার বেতন ১০ হাজার। এই মাইনেতে চলছে না আর। সকালে যাঁরা ওয়ার্ডে কাজ করেন, তাঁদের বেতন সাড়ে ১০ হাজার করা হলেই ফের কাজ চালু করব আমরা।’

প্রসঙ্গত, গ্রুপ ডি কর্মীরা মূলত হাসপাতালের ওয়ার্ডেরই কাজকর্ম করে থাকেন। কোভিড পরিস্থিতির মধ্যে হাসপাতালের কাজ বন্ধ হয়ে গেলে রোগীরা বড় সমস্যায় পড়তে পারেন। ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ কর্তৃপক্ষ সূত্রের খবর, চেষ্টা করা হবে বিষয়টি নিয়ে আলাপ আলোচনা চালিয়ে সমস্যা মেটানোর। তবে কখন সেই আলোচনা শুরু হবে এবং তার ফল কী হবে, তা স্পষ্ট নয় বৃহস্পতিবার সকাল গড়ানো পর্যন্ত।